ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে ১০ টি ভুল ধারণা

ফ্রিল্যান্সিং ভুল
ফ্রিল্যান্সিং ভুল

আজকে আমি আপনাদের জানাবো ফ্রিল্যান্সিং নিয়ে ১০ টি ভুল ধারণা, যেগুলো আপনি লোকমুখে হয়তো শুনে এসেছেন

ফ্রিল্যান্সিং ভুল গুলো

ফ্রিল্যান্সিং ভুল গুলো আজ আপনাদের সামনে তুলে ধরবো

রাত না জাগলে ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায় নাঃ

আপনি নিশ্চই শুনেছেন ফ্রিল্যান্সার হতে হলে আপনাকে পুরো রাত জাগতে হয়, রাত না জাগলে আপনি ফ্রিল্যান্সার হতে পারবেন না! যদি এমন কিছু শুনে থাকেন আপনি ভুল! কেনো ভুল?যদি আপনি মনে করেন অনলাইনে আয় করার নামই ফ্রিল্যান্সিং হয় তাহলে ধরে নিন আপনি একটি এফিলিয়েট ওয়েবসাইট বানালেন, আপনার ওয়েবসাইট থেকে আপনি আয় করলেন। এখন আপনি আপনার ওয়েবসাইটে কনটেন্ট দিনে বা রাতে দিবেন এটা তো কোথাও লিখা নেই! সুতরাং রাত না জাগলেই যে ফ্রিল্যান্সার হওয়া যায় না এমন না, তবে ফাইভার/আপওয়ার্ক সহ ভিবিন্ন মার্কেটপ্লেসে কাজ রাতে পাওয়া যায় তার প্রথম কারণ আমাদের দেশের সময়ের সাথে বাহিরের দেশের মানুষের সময়ের তফাৎ। আবার ফ্রিল্যান্সিং সাইট গুলোর বায়ার গুলো বেশীরভাগ বিদেশী। তবে স্কিল থাকলে আপনি দিনে ও কাজ করতে পারবেন। রাতে জাগতেই হবে এমন কোন নিয়ম নেই। ফ্রিল্যান্সিং ভুল গুলো আমাদের সংশোধন করতে হবে।

 ফ্রিল্যান্সাররা অশিক্ষিত হয়ঃ

অনেকে বলে থাকেন ফ্রিল্যান্সিং যারা করে তারা স্কুল/কলেজ ড্রপ করে ফ্রিল্যান্সার হয়। জিনিষটা পুরোটাই ভুল কারণ ফ্রিল্যান্সিং করতে হলে অব্যশই একটা স্কিলের দরকার হয়। এখন নিশ্চই অশিক্ষিত কেও তো আর বিদেশী মানুষকে স্কিল প্রুফ করতে পারবে না। আমি অনেক বুয়টের ভাইদের ও চিনি যারা প্রোফেশনালি ফ্রিল্যান্সিং করে…  এসব কিছুই ফ্রিল্যান্সিং ভুল ধারণা।

আরো পড়ুন: ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেইস থেকে নির্ভরতা কমিয়ে নিজের বিজনেস ডেভেলপ করা কেন প্রয়োজন?

ফ্রিল্যান্সার মানেই লাখ লাখ টাকাঃ

এই জিনিষটা একবারেই ভুল! আপনি ভিবিন্ন স্কিনশট দেখে মনে করেন ফ্রিল্যান্সার হয়ে গেলেই লাখ লাখ টাকা আয় করবেন! আসলে দুনিয়ার সব প্রোফেশনের কাজই কষ্টের। সফল হতে হলে প্রচুর ধৈর্যের পরিক্ষা দিতে হয়। ফ্রিল্যান্সিং আজকে শুরু করলেন আর লাখ টাকা আয় করে ফেলবেন এমন কিছু নেই। একটা উদাহরণ দেই ধরেন সাকিব নামে এক ব্যাক্তি ফাইভারে কাজ করে। মাসে সে ১০/২০ টা অর্ডার পায়। এই ১০/২০ টি অর্ডার থেকে তার মাসে ৩০/৪০ হাজার টাকা আয় হয়। এখন সে হঠাত একদিন অসুস্থ হয়ে গেলো যার ফলে ২ মাস বিছানা থেকে আর উটতে পারলো না, তাহলে তার কী আর মাসে আয় হবে? সে আগের মাস গুলোতে ১০/২০ টি অর্ডার পেতো কারণ সে কাজ করতে পারতো, এখন সে কাজ করতে পারে না সুতরাং তার আয় ও নেই। সুতরাং ফ্রিল্যান্সার মানেই লাখ লাখ টাকা না। অনেক ফ্রিল্যান্সার আছে একমাস টুরে গেলে ফিরে এসে এমবি ও কিনতে পারে না। ফ্রিল্যান্সিং মানেই কামলা খাটাঃ

জিনিষটা আসলে এমন না, আপনি চাইলে ক্লাইন্টের কাজ করে ও ফ্রিল্যান্সিং করতে পারেন, আবার অনলাইনে বিজনেস এমনকি প্যাসিভ ইনকাম ও করতে পারেন। উদাহরণ আমি যদি এখন নিজে একটি ওয়েবসাইট ক্রিয়েট করি। সেখানে কনটেন্ট দেই এবং এডসেন্স থেকে আমার হয় তাহলে আমি কীভাবে কামলা খাটলাম?? এসব কিছুই ফ্রিল্যান্সিং ভুল ধারণা

ফ্রিল্যান্সার মানেই রোবটঃ

অনেকে এটা চিন্তা করেন যে যারা ফ্রিল্যান্সার তারা সবাই রোবট, তাদের মধ্যে দয়া মায়া কিছুই নেই! বিষয়টি আসলে এমন না। ফ্রিল্যান্সিং একটি পেশা, এখানে যারা কাজ করে তারা ও মানুষ, তারা ও তাদের পরিবারের সাথে সময় কাটায়, তারা ও তাদের মা বাবা ভাই বোনদের ভালোবাসে, তারা সারাদিন পিসিতে থাকে বলেই যে দুনিয়া ভুলে যাবে এমন না, হিসাবে দেখা গেছে ফ্রিল্যান্সার’রা একটু বেশী রোমান্টিক হয়।  এসব কিছুই ফ্রিল্যান্সিং ভুল ধারণা

পিসি কিনলেই ফ্রিল্যান্সার হয়ে যাবোঃ

আমরা অনেকে চিন্তা করি পিসি কিনলেই ফ্রিল্যান্সার হয়ে যাবো! আসলে কাহিনী এমন না, ফ্রিল্যান্সিং করতে হলে তো নিশ্চই একটা স্কিল থাকা লাগবে, পিসি থাকলেই যদি ফ্রিল্যান্সার হওয়া যেতো তাহলে আজকে নিশ্চই ঘরে ঘরে ফ্রিল্যান্সার থাকতো। আপনি ঋন করে পিসি কিনলেন তারপর ২ মাসে আয় করতে পারলেন না, তারপর নিজের যায়গা জমিন বিক্রি করে ঋন দেওয়া লাগবে। ঋন টিন করে পিসি না কিনে নিজে আগে একটি টপিকে অভিজ্ঞ হন তারপর পিসি নিয়ে কাজ শুরু করুন, মোবাইল দিয়েই অনেক কিছুই করা যায়।

 বড়ভাই যেটা করছে সেটা আমি করলেই সফলঃ

আমরা অনেকে চিন্তা করি আশেপাশের বড় ভাই যেটা করেছে সেটা করলেই আমরা সফল হয়ে যাবো , এটা আসলেই অনেক বড় ভুল। ধরুন আমি এফিলিয়েট করে লাখ টাকা আয় করি, এখন আমি এফিলিয়েট মার্কেটিং করি বলে আপনি ও শুরু করে দিলেন তাহলে তো আপনি ভুল! কারণ সব জিনিষের সমান ভ্যালু আছে। আপনার মন যেটা বলবে সেটাই আপনি মনের উর্ধে গিয়ে কিছু করলে কোনদিন সফল হতে পারবেন না। এসব কিছুই ফ্রিল্যান্সিং ভুল ধারণা

আজ না কাল শুরু করবোঃ

আমাদের সবারই একটা সমস্যা আছে যে আমরা কোন কাজ আজকে না করে কাল করার চিন্তা করি, কিন্তু কালকে গেলে আমরা সেইম চিন্তা আবার করি তবে এই গুলো আসলেই ভুল! সময় কারো জন্য অপেক্ষা করে না, সুতরাং যেটা করতে হবে এখনিই করতে হবে। কালকের জন্য কোন কাজ ফেলে রাখা যাবে না, কালকে আপনি আমি বাচবো কিনা সেটা ও জানি না সুতরাং জীবনে যেটাই করবেন এখনিই করুন। এসব কিছুই ফ্রিল্যান্সিং ভুল ধারণা

 টাকা আয়ের জন্য ফ্রিল্যান্সিং করা;

আগেই বলেছি ফ্রিল্যান্সিং হলো একটা স্কিল, ফ্রিল্যান্সিং করলে আপনি টাকা আয় করবেন এটা যেমন সত্যি থেমনি সত্যি আপনাকে অভিজ্ঞ হতে হবে, সুতরাং টাকা আয়ের চিন্তা না করে কাজ শিখার চিন্তা করে শুরু করতে হবে তাহলে সফল হবেন দ্রুত। এসব কিছুই ফ্রিল্যান্সিং ভুল ধারণা

ফ্রিল্যান্সিং করলেই কেবল অনলাইনে আয় হয়ঃ

আমাদের সমাজের সবাই চিন্তা করে ফ্রিল্যান্সার হলেই কেবল অনলাইনে আয় করতে হবে। কাহিনী এমন না, আপনি যখনি কোন স্কিল অর্জন করবেন সেই স্কিল দিয়ে আপনি চাইলে অফলাইনে ও কাজ করতে পারবেন। উদাহরণ ধরেন আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন শিখলেন, এখন লোগো আপনি অনলাইনে কোন মানুষকে বানিয়ে দিলেন যার ফলে আপনি অনলাইনে আয় করলেন, কিন্তু চিন্তা করেন আপনি যেহুতে গ্রাফিক্সের কাজ জানেন এই গ্রাফিক্স স্কিল দিয়ে আপনি অফলাইনে স্টুডিও এমনকি মিডিয়া রিলেটেড কিংবা কোন স্টার্টাপে চাকরি করতে পারবেন। সব কথার এক কথা নিজেকে আগে প্রো হিসাবে প্রমাণ করুন, কাজ নিজে এসে আপনাকে খুজবে , আর কাজ জানলে টাকা আয়ের অভাব হবে না, ফ্রিল্যান্সিং ও একটা পেশা এই পেশায় ও অনেক কষ্ট করতে হয়। দুনিয়ার কোন কাজ যেমন সহজ না ঠিক কোন কাজকেই অবহেলা করা ঠিক না, তবে ফ্রিল্যান্সিং একটি স্মার্ট পেশা, এখানে কাজ করতে আহামরি কোন রুলস নেই! পৃথিবীর যে কোন যায়গা থেকে যে কোন সময় কাজ করতে পারবেন। যে কোন মুহুর্তেই ভাগ্য বদলাতে পারবেন কেবল সঠিক রাস্তা অনুসরণ করতে হবে। 

error: দুঃখিত! কন্টেন্ট কপি করা যাবেনা! প্রয়োজনে শেয়ার অপশন থেকে শেয়ার করুন